Zilla Info

মিরসরাই কিসের জন্য বিখ্যাত

বন্ধুরা, সবাই কেমন আছেন? আশা করি সবাই ভালো আছেন। আমি ও আলহামদুলিল্লাহ ভালো আছি।  বন্ধুরা আমরা এখন কথা বলব মিরসরাই নিয়ে। আরো জানবো মিরসরাই কিসের জন্য বিখ্যাত? আমরা এখন মিরসরাই নিয়ে সংক্ষিপ্ত আরোচনা করব।

মিরসরাই কিসের জন্য বিখ্যাত

বর্তমান মীরসরাই এলাকায় মোগল আমলে একটি সামরিক ঘাঁটি ছিল। ঘাঁটিটি মেহমান সরাই নামে পরিচিত। সেখানে মীর সাহেব নামে এক মুসলিম সৈনিক মারা যায়। তাঁর নামে এই থানার নামকরণ মীরের সরাই বা মীরসরাই করা হয়েছে বলে ধারণা করা হয়। আমরা এখন জেনে নিব মিরসরাই এর সংক্ষিপ্ত বিবরন।

একপাশে সুউচ্চ পাহাড়রাজি অন্যপাশে সুবিশাল বঙ্গোপসাগর একদিকে ভারতীয় পাহাড় থেকে আসা ফেনী নদী।অপরদিকে আরেক উপজেলা সীতাকুন্ড। এর মাঝখানে অসংখ্য গিরিঝিরি বেষ্টিত সমতল ভূমির নাম মীরসরাই উপজেলা। এরকম দৃশ্য বাংলাদেশে বিরল ঘটনা।

ভৌগোলিক কারনে পাহাড় নদী সাগরের যে প্রাকৃতিক বৈচিত্রতা এখানে আছে সেটা একদিনে দেখে শেষ করা সম্ভব না। যদি আপনাকে প্রশ্ন করা হয় বাংলাদেশের প্রবেশদ্বারের নাম কি? সহজে সবাই বলবে চট্টগ্রাম।

See also  নোয়াখালী কিসের জন্য বিখ্যাত

আর যদি বলা হয় চট্টগ্রামের প্রবেশদ্বার নাম কি? তাহলে অবশ্যই আসবে চট্টগ্রামের প্রথম উপজেলা মীরসরাই’র নাম। এটা এমন একটি উপজেলা যেখানে প্রশাসনিকভাবে দুটি থানা, দুটি পৌরসভা রয়েছে।আছে দুটি প্রেস ক্লাব।দুটি বানানরীতি।

কি কি বিশেষত্বের কারনে মীরসরাই বিখ্যাত

আমরা এখন জেনে নিব, কি কি বিশেষত্বের কারনে মীরসরাই বিখ্যাত? নিচে মিরসরাই এর সংক্ষিপ্ত বিবরন তুলে ধরছি।

১.ঐতিহাসিক ব্যক্তিত্ব: মীর আবদুল গফুর খান (যার নামে মীরসরাই নামকরন), পরাগল খাঁ, বুজুর্গ উমেদ খান, চৌধুরী আবুতোরাব, সূফী নূর মোহাম্মদ নিজামপুরী (গাজীয়ে বালাকোট), জমিদার কেনু মিঞা চৌধুরী, গোকুল ঘোষাল, বিপ্লবী বিনোদ বিহারী। এই ব্যক্তিত্ব এর কারনে মিরসরাই বিখ্যাত বলে গণ্য।

২. অর্থনৈতিক: এশিয়ার সর্ববৃহৎ শিল্পনগরী। অর্থনৈতিক  শিল্পনগরী মিরসরাই তে অবস্থিত। এ কারনে মিরসরাই বিখ্যাত।

৩. স্বাধীনতা সংগ্রামী: দেশের সর্বোচ্চ সংখ্যক মুক্তিযোদ্ধা। তাদের এই ব্যক্তিত্ব এর কারনে মিরসরাই বিখ্যাত বলে গণ্য।

৪. রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব: ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি, প্রফেসর কামাল উদ্দিন চৌধুরী। তাদের এই ব্যক্তিত্ব এর কারনে মিরসরাই বিখ্যাত বলে গণ্য।

See also  যশোর কিসের জন্য বিখ্যাত | যশোরের বিখ্যাত নদীটির নাম কি

৫. সামরিক কারন: ‘ব্যাটল অব বিলোনিয়া’।এই যুদ্ধের নানা দিক বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সামরিক কলেজে পড়ানো হয়। এ কারনে মিরসরাই বিখ্যাত।

৬. ঐতিয্যবাহী বাজার: আবুতোরাব বাজার, শান্তিরহাট বাজার, করেরহাট বাজার। এ কারনে মিরসরাই বিখ্যাত।

৭. খ্যাতিমান লেখক/লেখিকা: ফাহমিদা আমিন,প্রিন্সিপাল হারুনুর রশিদ,আহমদ মমতাজ,মাওলানা মাহমুদুল হাসান তাদের এই ব্যক্তিত্ব এর কারনে মিরসরাই বিখ্যাত বলে গণ্য।

৮.  প্রাকৃতিক: অসংখ্য পাহাড়ি ঝরনা বিশেষত খৈয়াছড়া ঝরনা।দেশের ২য় বৃহত্তম কৃত্রিম লেক- মহামায়া লেক, এশিয়ার বৃহত্তম মুহুরি সেচপ্রকল্প। এ কারনে মিরসরাই বিখ্যাত।

৯. ঐতিহাসিক স্থান-স্থাপনা: শুভপুর ব্রিজ,ছুটি খাঁ মসজিদ (চট্টগ্রামের প্রাচীনতম মসজিদ),ধুমঘাট (আরাকানিদের নৌঘাটি),নয়দুয়ারিয়ার দিঘী,পরাগল খাঁ দিঘী। ঐতিহাসিক স্থান-স্থাপনার জন্য মিরসরাই বিখ্যাত।

১০. সামাজিক : সর্বোচ্চ সংখ্যক সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।  সামাজিকতার  জন্য মিরসরাই বিখ্যাত।

আর ও অনেক তথ্য আমাদের অজানা। আরো বিভিন্ন বিষয় আছে যেগুলোর কারণে  মিরসরাই বিখ্যাত। এখন সময় কম তাই এইটুকু লিখলাম। ইন শা আল্লাহ, আগামিতে আরো বড় করে লেখার চেষ্টা করব।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button