Telecom

বাংলালিংক ইমারজেন্সি ব্যালেন্স কোড

কথা বলতে বলতে মোবাইলের টাকা শেষ হয়ে গেছে।এখন কি করবেন? কিভাবে ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নিতে হয় জানেন না। আপনাদের সুবিধার জন্য  কিভাবে ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নিতে পারবেন তা নিয়ে আলোচনা করব।

 

 

 

 

বাংলালিংক ইমারজেন্সি ব্যালেন্স কোড

 

ব্যালেন্স শেষ? বাংলালিংক ইমার্জেন্সি ব্যালেন্সের সাথে গ্রাহকেরা এখন ব্যালেন্স শেষ হয়ে গেলেও অগ্রিম ব্যালেন্স নিয়ে যোগাযোগ অব্যাহত রাখতে পারবেন! বাংলালিংক ইমার্জেন্সি মেইন ব্যালেন্সের সাথে গ্রাহকেরা এখন ২০০ টাকা পর্যন্ত অগ্রিম ব্যালেন্স নিতে পারবেন! ইমার্জেন্সি মেইন ব্যালেন্স পেতে ডায়াল করুন *৮৭৪#

 

বাংলালিংক ইমারজেন্সি ব্যালেন্স দিয়ে কি কি করতে পারবেন

 

 

ইমার্জেন্সি মেইন অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স যেকোনো উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা যাবে। বাংলালিংক ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স নেয়ার পর, ঋণের পরিমাণ স্বয়ংক্রিয়ভাবে গ্রাহকের পরবর্তী রিচার্জের সাথে সমন্বয় করা হবে।গ্রাহকদের বাংলালিংক ইমার্জেন্সি সার্ভিস উপভোগ করতে মোবাইলে ৩০ টাকা বা তার কম ব্যালেন্স থাকতে হবে। ১৫ টাকা বা তার বেশি লোন এর ক্ষেত্রে এসএমএস চার্জ হিসাবে ২ টাকা (এসডি, ভ্যাট ও এসসি সহ) কেটে নেয়া হবে।

See also  বাংলালিংক মিনিট কেনার নিয়ম

 

পূর্ববর্তী বাংলালিংক ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স শোধ না হওয়া পর্যন্ত গ্রাহকেরা আরেকটি বাংলালিংক ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স এর জন্য অনুরোধ করতে পারবেন না। সকল বাংলালিংক প্রিপেইড এবং কল অ্যান্ড কন্ট্রোল গ্রাহকেরা এই সেবা উপভোগ করতে পারবেন।

 

১০ টাকা ইমার্জেন্সি মেইন ব্যালেন্স পেতে ডায়াল: *৮৭৪*১০# (এসএমএস চার্জ প্রযোজ্য নয়). সকল বাংলালিংক প্রিপেইড এবং কল অ্যান্ড কন্ট্রোল গ্রাহকের জন্য প্রযোজ্য। নতুন সংযোগের ক্ষেত্রে সার্ভিসটি ৩০ দিন পর থেকে নেয়া যাবে।

 

বাংলালিংক ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স আপনার জন্য প্রযোজ্য কিনা জানতে বা বিস্তারিত জানতে ডায়াল করুন *১২১*৫# অথবা *৮৭৪*৯#  ।

 

ইমার্জেন্সি ব্যালেন্সের চেক

 

ইমার্জেন্সি মেইন অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স যেকোনো উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা যাবে। বাংলালিংক ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স নিলে ইমার্জেন্সি ব্যালেন্সের চেক করতে হবে। এখন আমরা জেনে নিব।

ইমার্জেন্সি ব্যালেন্সের চেক করতে ডায়াল করতে হবে  *৮৭৪*০# অথবা *১২১*১#। এই কোডটি ডায়াল করলে ইমার্জেন্সি ব্যালেন্সের চেক করতে পারবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button